Breaking News

মিরপুরে শুরু হচ্ছে দীঘির সিনেমার শুটিং

প্রথমবারের মত অনুদানের সিনেমা করতে যাচ্ছেন দীঘি। সিনেমার নাম ‘শ্রাবণ জ্যোৎস্নায়’। ইমদাদুল

হক মিলনের গল্পে এটি পরিচালনা করবেন ‘ঝিনুক মালা’খ্যাত পরিচালক আব্দুস সামাদ খোকন।

আগামী ১৫ অক্টোবর থেকে রাজধানীর মিরপুর ডিওএইচএস এলাকায় শুরু হতে যাচ্ছে সিনেমার শুটিং। এমনটাই নিশ্চিত করেন সিনেমার পরিচালক।

তিনি জানান, এই সিনেমার গল্পের গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রের নাম মৌ। এই মৌ চরিত্রেই অভিনয় করবেন

প্রার্থনা ফারদিন দীঘি। দীঘিও বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন,‘শ্রদ্ধেয় আব্দুস সামাদ খোকন আঙ্কেল’র

নির্দেশনায় আমি প্রথমবারের মতো সিনেমায় কাজ করছি। আমার চরিত্রের নাম মৌ। আমার কাছে চরিত্রটি ভীষণ ভালো লেগেছে।

যে কারণে চরিত্রটিতে অভিনয়ের জন্যও আমার মধ্যে প্রবল আগ্রহ তৈরী হয়েছে। তাছাড়া এর গল্প শ্রদ্ধেয় ইমদাদুল হক মিলনের।

যে কারণে আগ্রহটা আরো বেশি। আমি শুটিং-এ যাবার পূর্বে নিজেকে মৌ চরিত্রের জন্যই প্রস্তুত করছি। জানিনা মৌ’কে কতোটা ফুটিয়ে তুলতে পারবো।

তবে আমার ভীষণ রকম আন্তরিক চেষ্টা থাকবে নিজের চরিত্রটি ভালোভাবে ফুটিয়ে তোলার। শ্রদ্ধেয় পরিচালকসহ পুরো ইউনিট যদি আমাকে

আন্তরিকভাবে সহযোগিতা করেন আমার বিশ্বাস আমি কাজটি ভালোভাবে শেষ করতে পারবো।’

এই সিনেমার জন্য এরইমধ্যে শিল্পী অণিমা রায় বেশ কয়েকটি রবীন্দ্র সঙ্গীত গেয়েছেন। শ্রোতা দর্শক দীঘির লিপে গানগুলো উপভোগ করতে পারবেন। পরিচালকের বিশ্বাস অণিমার গাওয়া গানগুলো দীঘি’র লিপে দর্শক বেশ উপভোগ করবেন।

‘শ্রাবণ জ্যোৎস্নায়’ সিনেমার সংলাপ রচনা করেছেন আব্দুস সামাদ খোকন ও ইমদাদুল হক মিলন, চিত্রনাট্য করেছেন আব্দুস সামাদ খোকন।

এদিকে গেলো শোক দিবস উপলক্ষ্যে দীঘি অভিনীত ‘টুঙ্গী পাড়ার মিয়া ভাই’ সিনেমাটি মুক্তি পায়। এই সিনেমায় তার অভিনয় বেশ প্রশংসিত হয়।

দীঘি অভিনয় করছেন বাংলাদেশের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে বায়োপিকে। শ্যাম বানেগালের পরিচালনায় এই বায়োপিক-

এ তিনি অভিনয় করছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহধর্মিনী বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিবের চরিত্রে। দীঘি অভিনীত প্রথম মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা ছিলো দেলোয়ার জাহান ঝন্টু পরিচালিত ‘তুমি আছো তুমি নাই’। এছাড়াও প্রচারের অপেক্ষায় আছে দীঘি অভিনীত ‘চিঠি’। এতে তার বিপরীতে আছেন ইয়াশ রোহান।

ছবি : মোহসীন আহমেদ কাওছার

Check Also

হানিমুনে কাজলের প্রতিরাতে খরচ ৩৩ লাখ টাকা!

তারকা মানেই চাকচিক্যের ছটা। তাদের জীবন যাপনে শুধুই আলোর ঝলকানি। কোনো উৎসব হলেই তা বেড়ে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *